About

কাজী নূরুজ্জামানের জীবন

Life of Quazi Nooruzzaman

একাত্তরের মার্চে কর্নেল (অব.) কাজী নূর-উজ্জামান ছিলেন অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা। ২৫ মার্চ পাকিস্তানি বর্বর হানাদার বাহিনী যখন বাঙালী হত্যা শুরু করে বিশেষত ইপিআর-এর সদস্য ও তাদের পরিবার-পরিজনের ওপর নির্বিচারে আক্রমণ চালায় তখন ইপিআর সদস্যদের পরিবার-পরিজনের আর্তনাদ তাঁকে বিক্ষুব্ধ করে তোলে। সেই নৃশংস দৃশ্য দেখে মেজর (অব.) কাজী নূর-উজ্জামান তাঁর পরিবারের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেন হানাদারের বিরুদ্ধে আবার অস্ত্র তুলে নেওয়ার। তিনি তাঁর পরিবার-পরিজনকে ময়মনসিংহ জেলার গান্ধিনা নামক এক গ্রামে পাঠিয়ে ২৮ মার্চ তৎকালীন কর্নেল শফিউল্লাহর ব্যাটালিয়নে যোগ দেন। মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক কর্নেল এমএজি ওসমানী কাজী নূর-উজ্জামানকে নিজের সাথে রেখে বিভিন্ন কাজের দায়িত্ব অর্পণ করেন। জুলাই মাসে তিনি ৭নং সেক্টরে কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পান।
অসীম সাহসী স্বাধীনচেতা এই মানুষটির জন্ম ২৪ মার্চ ১৯২৫ সালে। পিতার নাম খান সাহেব কাজী সদরুলওলা, মাতার নাম রতুবুন্নেসা। কলকাতা সেন্ট-জেভিয়ার্স কলেজের কেমিস্ট্রির ছাত্র থাকা অবস্থায় অনার্স পরীক্ষা শেষ না করেই বাবার অমতে তিনি ১৯৪৩ সালে নেভিতে ভর্তি হন। নেভিতে চাকরিরত অবস্থায় ব্রিটিশ অফিসারদের সাথে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মতবিরোধ ঘটায় দু-দুবার কোর্ট মার্শাল হয়; অত্যন্ত বুদ্ধিমত্তার কারণে সেই কোর্ট মার্শাল থেকে তিনি রেহাই পান। ১৯৪৬ সালে পণ্ডিত জওহরলাল নেহরুর আহ্বানে নেভি থেকে সেনাবাহিনীতে ট্রান্সফার নেন।
১৯৪৯ সালে ইংল্যান্ডের রয়েল আর্টিলারি স্কুল থেকে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ শেষে কাশ্মির যুদ্ধে জেলাম সেক্টরে যোগদান করেন। ১৯৫০ সালে ক্যাডেট ট্রেনিং স্কুলে শিক্ষক হিসেবে দায়িত্বপালন করেন। ১৯৫৬ সালে মেজর হিসেবে পদোন্নতি লাভ করেন। ১৯৫৮ সালে স্টাফ কলেজে অত্যন্ত মনোযোগের সাথে অধ্যয়ন শেষে এই সিদ্ধান্তে পৌঁছান যে যুদ্ধ কোনো সমস্যার সমাধান করেনি এবং ভবিষ্যতেও যুদ্ধ দিয়ে কোনো রাজনৈতিক সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়। এই সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি ১৯৬২ সালে ইপিআইডিসিতে বদলি হয়ে আসেন। এখানেও পশ্চিম পাকিস্তানি আমলাদের সাথে তাঁর মতবিরোধ দেখা দেয়। আমলাদের ব্যবহারে অসন্তুষ্ট হয়ে তিনি ১৯৬৯ সালে চাকরি থেকে স্বেচ্ছায় অবসর নেন এবং ব্যবসায় মনোনিবেশ করেন। কর্নেল কাজী নুর-উজ্জামান আর্মিতে চাকরিকালীন সময় থেকেই বিশেষ করে ১৯৬২ সাল থেকে এদেশের প্রগতিশীল শিক্ষক চিন্তাবিদ লেখক বুদ্ধিজীবীদের সাথে নিবিড় সম্পর্ক গড়ে তোলেন। ড. আহমদ শরীফ যখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্টস ফ্যাকাল্টির ডিন তখন থেকেই কাজী নূর-উজ্জামান ড. আহমদ শরীফের স্বাতন্ত্র্য-বৈশিষ্ট্যের প্রতি আকৃষ্ট হন এবং তাঁর সান্নিধ্যে আসেন। ড. আহমদ শরীফের সমাজচিন্তা, স্পষ্টবাদিতা এবং চারিত্রিক দৃঢ়তার জন্য তিনি তাঁকে অত্যন্ত শ্রদ্ধার চোখে দেখতেন। ড. শরীফ প্রতিষ্ঠিত স্বদেশ চিন্তা সঙ্ঘের সাথেও তিনি ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত হয়ে ড. আহমদ শরীফের মৃত্যুর আগ পর্যন্ত কাজ করেছেন। কর্নেল কাজী নূর-উজ্জামান বীরউত্তম সাম্রাজ্যবাদ আধিপত্যবাদের বিরুদ্ধে একসময় বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় নিয়মিত কলাম লিখেছেন।
কর্নেল (অব.) কাজী নূর-উজ্জামান একজন প্রতিবাদী মানুষ ছিলেন। দেশী-বিদেশী সকল প্রতিক্রিয়াশীল বিরোধী আন্দোলন-সংগ্রামে তাঁর প্রত্যক্ষ অংশগ্রহণ আন্দোলনকামী জনতাকে উদ্বুদ্ধ করেছে। তিনি ছিলেন বাংলাদেশ লেখক শিবির-এর অন্যতম সদস্য, ছিলেন গণতান্ত্রিক সংস্কৃতি ফ্রন্টের অগ্রভাগে। কর্নেল (অব.) কাজী নূর-উজ্জামান বীরউত্তমকে আহ্বায়ক করে প্রগতিশীল রাজনৈতিক সংগঠনগুলো গড়ে তুলেছিল ফ্যাসিবাদবিরোধী গণতান্ত্রিক কমিটি। ১৯৮৫ সালে গঠিত মুক্তিযুদ্ধ চেতনা বিকাশ কেন্দ্রের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন কর্নেল (অব.) কাজী নূর-উজ্জামান বীরউত্তম। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন ও একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল জাতীয় কমিটি আয়োজিত গণআদালতের অন্যতম বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন এই সাহসী যোদ্ধা। তাঁর সম্পাদনায় প্রকাশিত হয়েছে সাপ্তাহিক নয়াপদধ্বনি। 'একাত্তরের ঘাতক ও দালালরা কে কোথায়' গ্রন্থের অন্যতম সম্পাদক কর্নেল (অব.) কাজী নূর-উজ্জামান বীরউত্তম।
তাঁর রচিত গ্রন্থসমূহ-'মুক্তিযুদ্ধ ও রাজনীতি', 'বাংলাদেশের সমাজ ও রাজনীতি' এবং 'স্বদেশ চিন্তা' সুধীজন কর্তৃক সমাদৃত।
কাজী নূর-উজ্জামান ২০১১ সালের ৬ মে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।
তথ্যসূত্র: 'একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ- একজন সেক্টর কমান্ডারের স্মৃতিকথা'-লেখক কর্নেল (অব.) কাজী নূর-উজ্জামান।
লেখক : মৌরী তানিয়া
কাজী নূরুজ্জামান সম্পর্কে জানতে নিচের লিঙ্ক এ ক্লিক করুন

Wikipedia(Bangla)
Wikipedia(English)
The Daily Star
The Daily Star

গণহত্যা বন্ধ করুন
জহির রায়হানের একটি শর্ট ফিল্ম

TRIBUTE TO QUAZI NOORUZAMAN BIR UTTAM

This website is managed by the
QUAZI NOORUZZAMAN TRUST



1. Mr. A.S.M.Shahidullah Khan - Chairperson

2. Dr. Naila Khan - Trustee

3. Mrs. Lubna Marium - Trustee

4. Mr. Jamal Ahmed Sufi - Trustee

5. Dr. Qayyum Khan - Trustee

6. Mr. Zonayed Saki - Trustee




The objectives of 'QUAZI NOORUZZAMAN TRUST' are as follows

1. To promote, sponsor, co-ordinate activities for the advancement progressive and critical thinking in Bangladesh.

2. To organize seminars, conferences, and discussions with professionals and other persons interested in developing the Trust's objectives.

3. To arrange a Yearly Memorial Lecture in consonance with the aims of the Trust.

4. To publish journals, brochures, audio-visual outlets and create a website for the promotion and advancement of progressive and liberal thinking.

5. To co-ordinate or affiliate with any other association, national, regional, or international, whose objectives are similar to those the Trust.

6. To offer scholarships and fellowships to deserving candidates to persue research in consonance with the objectives of the Trust.

Condolence Motion Passed in Bangladesh Parliament on May 22, 2011

Responsive image

Click on the image for full-view


Responsive image

Click on the image for full-view


Responsive image

Click on the image for full-view


Publications

Quazi Nooruzzaman (1925 – 2011) was the primary founder of the "Ghatak Dalal Nirmul Committee," (Committee to Uproot the Collaborators and Traitors of 1971) and worked to raise awareness about the Liberation War. He was editor of the weekly Noya Pododdhoni (New Footsteps.) He was the lead editor of Ekattorer Ghatak O Dalalra Kay Kothaye (Whereabouts of the Traitors and Collaborators of 71'). His books include Muktijuddho O Rajniti (The Liberation War and Politics), Bangladesher Samaj O Rajniti (Society and Politics in Bangladesh) etc.

Programs

First Quazi Nooruzzaman Memorial Lecture

(COMPLETE)
Download Lecture(English Version)

On the occasion of Sector Commander Late Quazi Nooruzzaman's 5th death Anniversary, the Quazi Nooruzzaman Trust, in association with Samaj Chinta Forum, is pleased to arrange the FIRST MEMORIAL LECTURE by Dr. Qayyum Khan. as follows:
Date: May 6, 2016, Friday
Time: 4:30 pm
Place: Kobi Shamsur Rahman Auditorium, Bangla Academy, Dhaka

Facebook event

Projects

Yearly Fellowship

We offer yearly Fellowship for relevant research, followed by a yearly Seminar where the findings of the research will be presented.

Yearly Presentation

We offer yearly presentation of 'Quazi Nooruzzaman Award' for outstanding contribution in the field of Development and Politics.

Contribution of books

We offer contribution of books to various Libraries in Bangladesh.

Contact

Quazi Nooruzzaman Trust

Address: House : 69,Road : 5,
               DOHS (Banani), Dhaka
Email:     kanchendzonga@gmail.com,
               naila.z.khan@gmail.com
Mobile: +8801713040814;
              +880 1755615300

© quazinooruzzaman.com 2016, Developed By: Single Bit IT Solutions